ভারত থেকে আসছিলো বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-মাদক

প্রথম সময় ডেস্কঃ

যশোরের বেনাপোল সিমান্তে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-গুলি ও মাদক উদ্ধার করেছে বিজিবির ৪৯ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। এ ঘটনায় তিন চোরাকারবারীকে আটক করা হয়েছে।

অস্ত্র ও মাদকের চালানের সাথে ভারতীয় দুই নাগরিক এবং বাংলাদেশের বেনাপোলের ধান্যখোলা নারায়ণপুর গ্রামের মাদক সম্রাট বাদশা মল্লিক জাড়িত বলে জানিয়েছে বিজিবি।

শনিবার বিকেলে শহরের ঝুমঝুমপুরস্থ ৪৯ ব্যাটালিয়ের সদর দপ্তরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. সেলিম রেজা এ সম্পর্কে তথ্য দিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে গোপন সূত্রে সংবাদ পেয়ে রঘুনাথপুর বিওপির হাবিলদার সিগন্যাল মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে বিজিবির একটি দল ২১/৬ এস নামক মেইন পিলারের কাছে অবস্থান নেয়। এসময় সীমান্ত অতিক্রম করে ২ ব্যক্তি দুইটি বস্তার মধ্যে করে অস্ত্র-গুলি ও মাদক নিয়ে আসলে বিজিবি ধাওয়া করে। তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও তাদের আটক করা হয়। পরে বস্তা খুলে ১১টি বিদেশি ৭.৬৫ পিস্তল, ২২টি ম্যাগজিন, ৫০ রাউন্ড গুলি এবং ১৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

ব্রিফিংয়ে লে. কর্ণেল সেলিম রেজা আরো জানিয়েছেন, আটক দুইজন হলেন বেনাপোল পোর্ট থানান্থ ধান্যখোলা গ্রামের মৃত সবেদ আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৪০) এবং শহিদ বিশ্বাসের ছেলে আনারুল ইসলাম (৩৫)। পরে ওই দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারি ওই মালামালগুলো তারা সাজজুল (৩০) নামক একজনের কাছে হস্তান্তর করবে। সেই মোতাবেক ওই গ্রামের এজুবার মিয়ার ছেলে সাজজুলকে আটক করা হয়।

তিনি আরো বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে ওই তিনজন বিজিবিকে জানিয়েছে- ওই অস্ত্র-গুলি ও মাদক ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগুনার বনগাঁ থানার ছয়ঘড়িয়া ভিড়া গ্রামের কোরবান আলী (৩৫) এবং লাল্টু মিয়ার (৩২) কাছ থেকে আনা হয়। তারা ওই মালামাল বেনাপোলের ধান্যখোলা গ্রামের মৃত করামত মিল্লকের ছেলে বাদশা মল্লিকের (৫০) কাছে পাঠিয়েছিল। বাদশা মল্লিকের আটকের জন্য বিজিবি চেষ্টা চালিয়েছিল। কিন্তু তাকে পাইনি।

এক প্রশ্নের জাবাবে লে. কর্ণেল সেলিম রেজা জানিয়েছেন, ওই অস্ত্রগুলোতে কোন দেশের তৈরি তা লেখা নেই। তবে এগুলো ৭.৬৫ বোরের। ওই অস্ত্র দেশের বাইরে তৈরি হয়। এ ঘটনায় বেনাপোর পোর্ট থানায় সাজজুল, আলমগীর ও আনারুলের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ওই মালামালের মূল্য ১২ লাখ ১৮ হাজার টাকা। তবে পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে দেখবে এই চোরাচালানের সাথে আর কেউ জড়িত কি-না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *