ডাব্লিউএফপির সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশের সালমা

প্রথম সময় ডেস্ক: ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের (ডাব্লিউএফপি) সম্মাননা পাচ্ছেন বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি প্রাণিচিকিৎসা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র মডেল লাইভস্টক ইনস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ডা. সালমা সুলতানা।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) তাদের ওয়েবসাইটে ২০২০ সালের ‘নরম্যান বোরলগ অ্যাওয়ার্ড ফর ফিল্ড রিসার্চ অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন’ এর বিজয়ী হিসেবে বাংলাদেশের এই তরুণ ভেটেরিনারিয়ানের নাম ঘোষণা করে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন।

সংস্থাটি বলছে, বাংলাদেশে হাজারো ক্ষুদ্র খামারিকে প্রশিক্ষিত করে তুলতে, তাদের গবাদিপশুর জন্য চিকিৎসা ও পরামর্শ সেবা পৌঁছে দিতে যে ব্যতিক্রমী মডেল সালমা গড়ে তুলেছেন, তার স্বীকৃতিতেই এবারের পুরস্কারের জন্য তাকে মনোনীত করা হয়েছে।

২০১৫ সালে মাত্র ২৭ বছর বয়সে সালমা শুরু করেন তার স্বপ্নের প্রকল্প ‘মডেল লাইভস্টক ইনস্টিটিউট ঢাকা’।

মাঠপর্যায়ে প্রাণিচিকিৎসায় দক্ষ জনশক্তি তৈরি করতে তার এ ইনস্টিটিউটে ১৪ মাস মেয়াদি ‘অ্যানিমেল হেলথ অ্যান্ড প্রোডাকশন’ ও ‘পোলট্রি ফার্মিং’ কোর্স করানো হয়।

খামারিদের সচেতন করতে কার্যক্রম চালানোর পাশাপাশি প্রাণীর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালও চালিয়ে আসছে মডেল লাইভস্টক।

২০১২ সালে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টর অব ভেটেরিনারি মেডিসিন (ডিভিএম) বিষয়ে স্নাতক শেষ করে ভারতের তামিলনাড়ুতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন সালমা সুলতানা। এরপর দেশে ২০১৪ সালে ফার্মাকোলজিতে মাস্টার্স করেন।

২০১৪ সালে মাস্টার্স শেষ করে সালমা কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করেন ইনস্টিটিউটের অনুমোদনের জন্য। চাকরিজীবী বাবার জমানো টাকায় তার ‘মডেল লাইভস্টক ইনস্টিটিউটের’ যাত্রা শুরু হয়।

মানুষের জন্য খাদ্য সহজলভ্য করতে এবং এর মান উন্নয়নে যারা কাজ করছেন, তাদের সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন প্রতিবছর এ পুরস্কার দেয়। ১৯৮৬ সালে নোবেলজয়ী নরম্যান বর্লুগ ‘বিশ্ব খাদ্য পুরস্কার’ প্রবর্তন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *