এবার সরাসরি রাজনীতিতে এলেন শেখ সোহেল

বিশেষ প্রতিনিধি: এবার সরাসরি রাজনীতিতে এলেন বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ সোহেল। যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে প্রেসিডিয়াম সদস্য হয়েছেন তিনি। ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ শেখ সোহেল আওয়ামী যুবলীগের নেতৃত্বে আসবেন এমনটি শোনা যাচ্ছিলো বেশ কিছু দিন ধরেই। অবশেষে সেই গুঞ্জন সত্যি হল। শনিবার রাতে কমিটি ঘোষণার পরপরই তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সেল ফোনে বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল এই প্রতিবেদককে জানান, একজন নবজাতক শিশুর মতোই সবে দায়িত্ব পেলাম। আমি ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ। আন অফিসিয়াল দলের দায়িত্ব এতদিন পালন করেছি, এখন রাজনৈতিক দায়িত্ব পেলাম, যুবলীগের দায়িত্ব পেয়ে আমার ও আমাদের প্রথম কাজ হবে, যুবলীগকে নানামুখী কলংক থেকে রক্ষা করে একটি ক্লিন ইমেজের সংগঠন দেশবাসীকে উপহার দেয়া।

শেখ সোহেল। বঙ্গবন্ধুর আপন সহোদর শেখ নাসেরের সন্তান। ৭৫ এর ১৫ আগস্টের কালো রাতে বঙ্গবন্ধু ও পরিবারের অন্য সদস্যের সাথে শেখ নাসেরও নিহত হন। ৫ ভাই এক বোনের মধ্যে শেখ সোহেল তৃতীয়। শেখ সোহেলের আগে বড় ভাই শেখ হেলাল ৯০ এর দশকে রাজনীতিতে নাম লিখিয়েছেন, কয়েক দফায় বাগেরহাট- ১ থেকে এমপি নির্বাচন হয়েছেন। মেজো ভাই শেখ জুয়েল খুলনা সদর আসনের এমপি। অন্য দুই ভাই শেখ রুবেল ও শেখ বাবুও রাজনীতির নেপথ্যের মানুষ। বড় ভাই শেখ হেলালের ছেলে শেখ তন্ময়ও বাগেরহাট সদর আসনের এমপি। ভাইরা কিংবা ভাইয়ের ছেলে এমপি হলেও তাদের দলীয় পোর্টফলীয়তে নাম দেখা যায় নি যেটা শেখ সোহেলের ক্ষেত্রে এবার দেখা গেলো।

আচার, ব্যবহার, ব্যক্তিগত গুণাবলীতে শেখ সোহেল অন্য একজন মানুষ। রাজনীতির নেপথ্যে তার নিজের ভাষায় তিনি সমাজের একজন সেবক মাত্র। হাসি, খুশী, সদালাপী শেখ সোহেল বরাবরই মিডিয়া বান্ধব।আপন চাচাতো বোন শেখ হাসিনা দেশের প্রধানমন্ত্রী হলেও শেখ সোহেলের মধ্যে তেমন অহংকার আজ অবধি কেউই দেখেনি। অতি সাধারণের মতোই তার চলাফেরা। পরোপকারী ও ধর্ম ভীরু সোহেল খুলনার মসজিদ, মাদ্রাসার উন্নয়নে ব্যাপক ভুমুকা রেখেছেন।

আলাপকালে শেখ সোহেল জানান, আন অফিসিয়ালি এতদিন দলের সব ধরনের দায়িত্বই পালন করেছি, এবার আপা (প্রধানমন্ত্রী) দায়িত্ব দিলেন, তার নিশ্চয়ই লক্ষ আছে, উদ্দেশ্য আছে। আপনারাও নিশ্চয়ই লক্ষ করেছেন, যুবলীগে এবার সমাজের বিভিন্ন স্তর থেকে নানা পেশা, নানা শ্রেণীর ব্যক্তিত্বকে তিনি স্থান দিয়েছেন, কমিটির নেতৃত্বে এনেছেন। আমাদের সম্মিলিত চেষ্টা হবে শেখ হাসিনার সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করা। চলমান উন্নয়নকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া।

দেশের যুব সমাজের উদ্দেশ্যে কি ম্যাসেজ আছে এমন প্রশ্নের উত্তরে শেখ সোহেল জানান, আসুন আমরা মাদক মুক্ত ও সন্ত্রাসমুক্ত একটি সমাজ গড়ি, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ দেশবাসীকে উপহার দেই। খুলনা তথা দেশের যুব সম্প্রদায়ের উদ্দেশ্যে শেখ সোহেল আরও বলেন, এই সংগঠনে চাঁদাবাজ, ভুমি দস্যু, দখলদার, মাদকসেবীদের কোনও স্থান নেই, বেকারদের কর্ম সংস্থানে যুবলীগ দেশব্যাপী ভুমিকা রাখবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *