আলেমদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার চায় জামায়াত

প্রথম সময় ডেস্ক: ইসলাম ও ইসলামী রাজনীতির বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আলেম ওলামাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মিথ্যা মামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে জামায়াতে ইসলামী।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে দলের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল রফিকুল ইসলামের পাঠানো এক বিবৃতিতে এই অভিযোগ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে ভাস্কর্য ও মূর্তিবিরোধী বক্তব্য দেওয়ায় হেফাজতে ইসলামের আমির মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মাদ মামুনুল হক এবং ইসলামী আন্দোলনের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করিমের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা দায়েরের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে জামায়াত।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভাস্কর্য ও মূর্তি নির্মাণ ইসলামী শরিয়তে নিষিদ্ধ। দেশবাসীর প্রত্যাশা ছিল শরিয়তের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে ভাস্কর্য নির্মাণ থেকে সরকার বিরত থাকবে। কিন্তু উল্টো বরেণ্য আলেমদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে অন্যায় করা হয়েছে।

চিনিকল বন্ধের প্রতিবাদ: পৃথক বিবৃতিতে জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ার রাষ্ট্রায়ত্ব ছয়টি চিনিকল বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিল এবং শ্রমিকদের ন্যায্য পাঁচ দফা দাবি মেনে নিতে সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, চিনিকল বন্ধ হলে শ্রমিকদের পথ বসা ছাড়া উপায় নেই। করোনা পরিস্থিতিতে তারা মানবেতর জীবনযাপন করছে। আখ মাড়াইয়ের মৌসুমে চিনিকল বন্ধের সিদ্ধান্তে কৃষকও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। লোকসানের অজুহাতে চিনিকল বন্ধ করা গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। প্রতিবেশী দেশ থেকে চিনি আমদানি করতেই সরকার এই ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *