ভাঙল সংগীত পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূনের ৬ বছরের সংসার

সাড়ে ৬ বছর একসাথে থাকার পর অবশেষে বিচ্ছেদের পথে হাটলেন সংগীত পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূন। গেল ১ নভেম্বর স্ত্রী সমী খানের সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় জনপ্রিয় এই সংগীত পরিচালকের।

এ বিষয়ে আহম্মেদ হুমায়ূন বলেন, আমাদের প্রায় সাড়ে ছয় বছরের সংসার ছিলো। একটা সময় মনে হলো, আমাদের দুজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছে না। দুজনের মতের মধ্যে অমিল দেখা যায়। যার কারণে একটা সময়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেই আলাদা হয়ে যাওয়ার। গত ১ নভেম্বর অফিশিয়ালি আমরা তালাকনামায় স্বাক্ষর করি।

তিনি আরও বলেন, আমার কাছে মনে হয়, একটা সংসারে দুজন দুজনকে বুঝবে; এটাই স্বাভাবিক। যদি এরকম না হয় তখন আর একসাথে থাকা যায় না। তাই দুজনে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এতটা সময় একসাথে থাকার পর কখন থেকে মনে হলো যে আপনাদের আর একসাথে থাকা সম্ভব না? এমন প্রশ্নে এই সংগীত পরিচালক বলেন, এই কোভিড পরিস্থিতিটা আমাদেরকে অনেক কিছুই শিখিয়েছে। এই পরিস্থিতির কারণে আমাদের লম্বা একটা সময় ঘরবন্দী হয়ে থাকতে হয়েছে। এই সময়টাতে একসাথে থাকতে গিয়ে আমাদের মধ্যে অনেক ঝামেলা হয়। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। এভাবে চলতে থাকার পর একটা সময় মনে হলো যে, আর একসাথে থাকা সম্ভব না।

২০১৪ সালের ২৩ মার্চ সমী খানের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন সংগীত পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূন। দুজনের মতের অমিল হওয়ায় অবশেষে হাটলেন বিচ্ছেদের পথে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *