যুক্তরাষ্ট্রে পাখিদের মহামারি

অনলাইন ডেস্কঃ

করোনায় রক্ষা নেই মানুষের, যেন পুরো মানব জাতির অস্তিত্ব হুমকিতে! এবার পাখির মহামারি শুরু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। রাজধানী ওয়াশিংটন থেকে শুরু করে বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে পাখির মৃতদেহ পড়ে আছে। প্রায় দুই মাস ধরে এই মহামারি চলছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু কী রোগে পাখির মৃত্যু হচ্ছে, তা জানা যায়নি। খবর ডয়চে ভেলের।করোনার প্রথম ঢেউ চলাকালে ভারতে পাখির মহামারি দেখা গিয়েছিল। দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে পাখির মড়ক এমন পর্যায়ে পৌঁছেছিল যে, হাঁস-মুরগি খাওয়াও বন্ধ করে দিয়েছিল সরকার। এবার সেই একই সমস্যা শুরু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটির প্রায় সব অঞ্চলে পাখির মৃতদেহ পাওয়া যাচ্ছে। গত এপ্রিল মাস থেকেই পাখির মরক শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

পাখি বিশেষজ্ঞরা ইতোমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে গবেষণা শুরু করেছেন। তাদের বক্তব্য, প্রথম সংক্রমণ ঘটছে পাখির চোখে। তারপর তা স্নায়ুতে ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে পাখি ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে এবং মৃত্যু হচ্ছে। পাখি বিশেষজ্ঞ জিম মোসামা বলেন, পাখিদের চোখে সংক্রমণ এর আগেও বিভিন্ন রোগে ঘটেছে। কিন্তু তা যেভাবে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে, সেটাই চিন্তার।

দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে ওয়াশিংটনে পাখি বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ করছেন মোসামা। ডয়চে ভেলেকে তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে বিষয়টি স্বাভাবিক বলেই মনে হচ্ছিল। যত দিন যাচ্ছে, ততই বোঝা যাচ্ছে বিষয়টি মহামারির আকার ধারণ করেছে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ওয়াশিংটন তো বটেই পার্শ্ববর্তী ৯৬৫ কিলোমিটার পর্যন্ত এ রোগ ছড়িয়ে গেছে। মূলত মধ্য যুক্তরাষ্ট্র থেকে পশ্চিম যুক্তরাষ্ট্র পর্যন্ত পাখিদের মৃতদেহ পাওয়া যাচ্ছে।

মহামারি যে শুরু হয়েছে, তা স্পষ্ট। কিন্তু এই মহামারির থেকে পাখিদের বাঁচানো যাবে কী করে, তা এখনো স্পষ্ট নয়। কারণ, রোগটিকেই এখনো চিহ্নিত করা যায়নি। তবে সব রকমের গবেষণা চলছে। মৃত পাখিদের ময়নাতদন্তও হয়েছে। রোগের উৎস খুঁজে বার করার চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *