খুলনায় ৩২ মণের গরু, দাম ৬ লাখ

অনলাইন ডেস্কঃ

লকডাউন শেষে প্রথম দিনে খুলনার ডুমুরিয়ার খর্নিয়া হাটে গরু বেচাকেনা শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত অবদি হাটে ছিল আগ্রহী ক্রেতার উপচেপড়া ভিড়। মাঝারি আকারের গরু বিক্রি হয়েছে সবচেয়ে বেশি। হাটে চার মণ ওজনের মাঝারি আকারের গরু বিক্রি হয়েছে ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকায়।

জানা যায়, খর্নিয়া হাটে ৩২ মণ ওজনের হোলস্টাইন ফ্রিজিয়ান জাতের একটি গরুর দাম উঠেছে ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা। ডুমুরিয়ার গোবিন্দকাঠি গ্রামের জাকির হোসেন গরুটি হাটে তুলেছেন। প্রায় সাড়ে ৫ ফুট উচ্চতা ও সাদাকালো ডোরাকাটার গরুটির দাম হাকিয়েছেন সাড়ে ৬ লাখ টাকা। তিনি বলেন, হোলস্টাইন ফ্রিজিয়ান জাতের এই গরুর মাংশ বেশি।

স্কেল দিয়ে মাপে গরুটির ওজন হয়েছে ৩২ মণ। এরই মধ্যে ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা দাম উঠেছে। ছয় লাখ টাকা হলে তিনি গরুটি বিক্রি করবেন। হাটে বিশাল আকারের গরুটি দেখতে মানুষ ভিড় জমিয়েছে।

হোলস্টাইন অর্থ সাদাকালো ডোরাকাটা আর আদি জন্মস্থানের নাম ফ্রিসল্যান্ড এর সাথে মিলিয়ে এই গরুর নাম হয় হোলস্টাইন ফ্রিজিয়ান।
বিক্রেতারা জানান, এবার লকডাউনে গরুর খাবারসহ লালনপালনের ব্যয়ভার অনেক বেড়েছে। সেই তুলনায় হাটে দাম পাওয়া যাচ্ছে না। বিক্রেতা জাকির হোসেন বলেন, অত্যন্ত নরম স্বভাবের গরুটি লালনপালনের জন্য অনেক টাকা ব্যয় হয়েছে। হাটেও গরুটিকে সামিয়ানার নিচে রেখে সামনে, পিছনে ও ওপরে তিনটি ফ্যান ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, গরুটি সাড়ে ৫ লাখ থেকে পৌনে ৬ লাখ টাকা বিক্রি করলেও লোকসান হবে।
এদিকে হাট পরিচালনা কমিটির সদস্য আসফার হোসেন জোয়াদ্দার জানান, শহরের মানুষ যারা কোরবানি করেন বাড়িতে জায়গা না থাকায় তারা সাধারণত ঈদের দুয়েকদিন আগে গরু কেনেন। হাটে এখন মধ্যস্বত্তভোগী ও ব্যাপারিদের আনাগোনা বেশি। তারা এই গরু কিনে ঈদের আগে প্রকৃত ক্রেতাদের কাছে বেশি দামে বিক্রি করবেন। প্রকৃত ক্রেতারা হোলস্টাইন ফ্রিজিয়ান জাতের গরুটির দাম আরও বেশি দিতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *